মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিবাহকে কেন্দ্র করে ৪ জনকে কুপিয় রক্তাক্ত করলো প্রতিপক্ষরা

হযরত আলী হিরু, পিরোজপুরঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বাল্য বিবাহকে কেন্দ্র করে চার জনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত করলো সন্ত্রাসীরা।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সাফা বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন বেপারি বাড়িতে।

ঘটনা সুত্রে জানাযায় ওই এলাকার সাহেব আলীর ছেলে ও ফখরুদ্দিন এর মেয়ের সাথে রবিবার রাতে পারিবারিকভাবে বিবাহের তারিখ ধার্য হয়। ছেলে মেয়ে অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়াকে কে বা কাহারা ৯৯৯ কল করিলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর মাধ্যমে বিবাহ বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং সাত হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এতে ছেলে ও মেয়ের পক্ষ ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিবেশী রতন বেপারীর পরিবারের লোকজনের উপর সন্দেহ করে রাতেই তাদের বাড়িতে হামলা করতে যায়। এ ব্যাপারে রতন বেপারির পরিবার উপায়ন্তর না পেয়ে পরদিন মঠবাড়িয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করলে অভিযোগের ভিত্তিতে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে তদন্ত করতে গেলে পুনরায় ক্ষিপ্ত হয়ে মো. রাজা মিয়া, সাহেব আলী, পারভেজ হোসেন, মামুন, ইয়াসিন, ফখরুদ্দিন, মহিউদ্দিন ও জামাল মিয়া সহ আরও ৮/১০ জন সন্ত্রাসী মিলে মিজানুর রহমান বেপারী, মোসা. জেসমিন,আল আমিন বেপারী, সাথী বেগম ও জাকারিয়া নামের ৪ জনকে কুপিয়ে মারাত্মকআহত করে ।
এক পর্যায়ে এলাকাবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মিজানুর ও জেসমিনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন এবং বাকি আলামিন ও সাথিকে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহা. নুরুল ইসলাম বাদল এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।