ভুলতা-ঢুলুরদিয়ার ১০ গ্রামের মানুষ চলাচলকারী সড়কের বেহালঅবস্থা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ভুলতা-হাটাব ঢুলুরদিয়া সড়কের বেহাল দশা। এলজিইডি অধীনে হাটাব শিমুলতলা এলাকার ১ কিলোমিটার সড়ক ভাঙার কারণে পুরো সড়কটি অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। শুধু তাই নয়, শিক্ষার্থী, জনসাধারণ ও যানবাহনসহ ১০ গ্রামের ৩৫ হাজার লোকের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার ভুলতা গাউছিয়া থেকে হাটাব হয়ে ঢুলুরদিয়া পর্যন্ত জনসাধারণের চলাচলের এই সড়কটি শিমুলতলা এলাকায় ১ কিলোমিটার ভেঙ্গে যাওয়ার কারণে  জনসাধারণের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার আমলাবো, কালী, হাটাব, আতলাশপুর, টেকপাড়া, এিশকাহনিয়া, দক্ষিণ বাড়ৈ, মাসুমাবাদ, পিঠাকুড়ি, ঢুলুরদিয়াসহ  ১০ গ্রামের ৩৫ হাজার লোক এ সড়ক দিয়ে চলাচল করে। হাটাব শিমুলতলা এলাকার ১ কিলোমিটার সড়ক ভাঙার কারণে পুরো সড়কটি চলাচলের অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়রা বিভিন্নভাবে প্রতিবাদ করেও কোনো প্রকার সুরাহা পাচ্ছে না। কারণ হিসেবে জানা যায়, এ সড়কটির দু’পাশে মাটি নেই বললেই চলে ।

দীর্ঘদিন এ অচলাবস্থা সৃষ্টি হলেও বিভিন্নসময়  এ প্রতিবাদ অব্যাহত রেখেছেন স্থানীয়। দুর্ভোগের শিকার মিঠাব আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, আতলাশপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, টেকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ ৭টি স্কুলের দুই হাজার শিক্ষার্থী। এ ব্যাপারে  হাটাব এলাকার হাজী মো. খোকন, বাড়ৈ পাড় এলাকার মকবুল হোসেন, ঢুলুরদিয়া এলাকার নূরুল ইসলাম, টেকপাড়া এলাকার মুকুল হোসেন জানান, এ সড়কটি দিয়ে আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করি। কোনো রিকশা, সিএনজি এ সড়কে আসতে চায় না। জনপ্রতিনিধিদের কাছে গিয়ে কোনো সুফল পাচ্ছি না। এমনকি প্রতিবাদ করেও  কোনো প্রকার সুরাহা পাচ্ছে না । আপনাদের মাধ্যমে আমাদের দাবি সরকার যেন এ সড়কটি দ্রুত মেরামত করার ব্যবস্থা করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী এনায়েত উল্লাহ বলেন, বিষয়টি ঊর্ধ্বতন মহলকে জানিয়ে দ্র”ত সংস্কারের ব্যবস্থা করা হবে।