বীর মুক্তিযোদ্ধা রব সিকদারে আস্থা গুয়ারেখাবাসী

হযরত আলী হিরু, পিরোজপুরঃ পিরোজপুর জেলা শ্রমিকলীগের ১নং সিনিয়র সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির গুয়ারেখা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ইউনিয়ন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব সিকদার।

পিরোজপুর জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি মজনু তালুকদার তার স্বাক্ষরিত এক প্রত্যয়নপত্রের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার গুয়ারেখা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামীলীগ দলীয় নমিনশন পেয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে চান মুক্তিযোদ্ধা রব সিকদার।

এ লক্ষে তিনি এলাকায় গরিব দরিদ্র অসহায় মানুষদের শিক্ষা, চিকিৎসায় আর্থিক সহায়তা প্রদান, মসজিদ মন্দিরে আর্থিক অনুদান প্রদান, তরুন ও যুবসমাজকে মাদক থেকে দুরে রাখতে ক্রীড়াঙ্গনে অনুদান প্রদান সহ নানা ধরনের জনকল্যানমূখী সেবামূলক কর্মকান্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত করেছেন। সদা হাস্যোজ্জল এই নেতা ইতিমধ্যে তার কর্মকান্ডের মাধ্যমে এলাকার জনগনের আশা আকাঙ্খার বাতিঘরে পরিনত হয়েছে। রব সিকদার ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত হয়েছেন। দায়িত্ব পালন করেছেন গুয়ারেখা ইউনিয়ন ও উপজেলা আওয়ামীলীগের বিভিন্ন কর্মকান্ডে। এখন পর্যন্ত নির্বাচন কমিশন থেকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের দিনক্ষন নির্ধারন করা না হলেও আসন্ন এই নির্বাচনকে সামনে রেখে স্বরূপকাঠির ১০ টি ইউনিয়নের মধ্যে গুরুত্বপূর্ন গুয়ারেখা ইউনিয়নে কে হবেন নৌকার কান্ডারী এ নিয়ে চলছে ভোটারদের মধ্যে নানা ধরনের আলোচনা পর্যালোচনা। গত পনের বছর এই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সমর্থিত চেয়ারম্যান থাকায় বর্তমানে ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের সমর্থন ও ভোটারদের সংখ্যা বেড়েছে বহুগুন। তবে ভোটারের তুলনায় এলাকায় কাঙ্খিত উন্নয়ন না হওয়ায় আগামী নির্বাচনে নৌকার কান্ডারী হিসেবে নতুন মুখ দেখতে চায় অনেকে। আর যিনি হবেন নৌকার কান্ডারী তার বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা নিশ্চিত। এলাকার একাংশ ভোটার ও দলীয় নেতাকর্মিরা মনে করেন মুক্তিযোদ্ধা রব সিকদার এলাকায় ক্লিন ইমেজের ব্যাক্তি। সর্বমহলে তার গ্রহনযোগ্যতা রয়েছে। সে দলীয় নমিনেশন নিয়ে নির্বাচন করলে বিজয়ী হতে পারবেন। এ ব্যাপারে জেলা শ্রমিকলীগের সিনিয়র সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব সিকদার জানান, বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে জীবন বাজি রেখে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করেছি। রাজনীতির শুরু থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে আসছি। দলে যখনই কোন কর্মকান্ডে দায়িত্ব পেয়েছি সফলতার সাথে সকলের আস্থা অর্জন করে সে কাজ সম্পন্ন করেছি।

আগামী নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আমি দলের কাছে নমিনেশন চাইব, দল যদি আমাকে নমিনেশন দেয় তবে নির্বাচিত হয়ে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল শক্তিকে সাথে নিয়ে অত্র ইউনিয়নকে মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিংমুক্ত একটি উন্নত আধুনিক মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলব।