> সংবাদ শিরোনাম
received_633472128474755

জরাজীর্ণ ভবনে চলছে চিকিৎসা সেবা

ওয়াসিম ফারুক, বিশেষ প্রতিনিধি:মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কনকসার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের জরাজীর্ণ ভবনে ই চলছে চিকিৎসা সেবা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ভবনের দেয়ালের প্লাষ্টার ওঠে গেছ । সিলিং ফ্যান বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন। শৌচাগারের অবস্থা আরো নাজুক ‌।

received_1157688385174951

নরমাল ডেলিভারির কক্ষে দেখা যায় ফলস ছাদের প্লাষ্টার খসে খসে পড়ছে। স্বাস্থ্য কেন্দ্রের রেজিস্ট্রি খাতার হিসাব অনুযায়ী এই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে থেকে প্রতিমাসে নরমাল ডেলিভারি হয়ে থাকে ৬ থেকে ৭ টি এবং ৭০ থেকে ৮০ জন গর্ভবতী মা চিকিৎসা সেবা নিয়ে থাকে।

প্রতিদিন গড়ে ৫০ থেকে ৬০ জন সাধারণ রোগী চিকিৎসা নিয়ে থাকে। সরেজমিনে আরোও দেখা যায় নবজাতক শিশু কোলে নিয়ে বসে আছে একজন বয়োবৃদ্ধ মহিলা কোলের নবজাতক সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান এটা তার নাতি এই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রে নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে ভূমিষ্ট হয়েছে সকালে।

received_1817085558637223

বয়োবৃদ্ধ মহিলা জানান আমরা গরীব মানুষ টাকা পয়সা নাই তাই নরমাল ডেলিভারির জন্য আমরা এখানে আসি কিন্তু দালানের যেই অবস্থা তাতে মনে হয় ছাদ ভেঙ্গে এখনই মাথায় পড়বে।

চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগী রাজিয়া সুলতানা জানান আমাদের কনকসার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে প্রায়ই আসি সেবা নিতে কিন্তু ভবনের যে অবস্থা এখানে আসলেই ভয় করে কারণ যে কোন মুহূর্তে ঘটে যেতে পারে দুর্ঘটনা।

কনকসার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা সালমা খাতুন জানান, আমাদের এখানে লোকবল সংকটের মধ্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান হচ্ছে। ভবনের যে অবস্থা তাতে করে একটু সচ্ছল পরিবারগুলো এখানে আসতে চায়না।

আর দরিদ্র পরিবারগুলো নরমাল ডেলিভারির জন্য এখানে আসে। তারপরও তারা ভয়ে ভয়ে থাকে কখন যে ছাদ ভেঙ্গে পড়ে।

এর আগে একজন রোগীর উপর ফ্যান পড়ে ৭ টি সেলাই লেগেছে। জনগণ ভয়ে আসতে চায়না। এই জরাজীর্ণ ভবনের কারণে কাঙ্খিত চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে পারছিনা। সরকারের কাছে আমাদের আবেদন অতি শীঘ্রই ভবনটির পুনঃনির্মাণ করে সাধারণ জনগণের চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে পারি।

এব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নাজমুস সালেহীনের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এই ব্যাপারটা দেখেন স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর। তবে তিনি জানান, আমরা ইতোমধ্যে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের কাছে নতুন করে চাহিদা পত্র দিয়েছি এটা কে নতুন করে ভেঙে করার জন্য তারা হয়তো এই সামনের বছর নতুন করে এই ভবনের কাজ শুরু করবে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful