> সংবাদ শিরোনাম
IMG-20220914-WA0004

বেসরকারি বিশ্ববিদ‍্যালয়ে ছাত্ররাজনীতি করার অধিকার আছে। -আবু হুরায়রা

মেহেদী হাসান রাসেলঃ
বেসরকারি বিশ্ববিদ‍্যালয়ে ছাত্র রাজনীতি বিষয়ে গতকাল বুধবার নয়াপল্টনে সাংবাদিক সম্মেলন করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কমিটি। সম্মেলনে উক্ত কমিটির সভাপতি আবু হুরায়রার লিখিত বক্তব‍্য পাঠ করা হয়। লিখিত বক্তব‍্যে তিনি বলেন-
বাংলাদেশ স্বাধীন সার্বভৌম গণতাতন্ত্রিক রাষ্ট্র। প্রত্যেক নাগরিক তার পছন্দমত রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে তার রাজনৈতিক ভাবনার বিস্তার ঘটাতে পারবেন। সংবিধান সেই ক্ষমতা নাগরিককে দিয়েছে৷ সংবিধানের ৩৮নং অনুচ্ছেদে রাষ্ট্র নাগরিকদের এই অধিকার নিশ্চিত করনের কথা বলেছে। সংবিধানের ৩৯ নং অনুচ্ছেদে, জনগনের চিন্তা-বিবেক, বাক স্বাধীনতা এবং ভাব প্রকাশের স্বাধীনতার কথা বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, ১৯৯২ সালে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় যাত্রা শুরু হয় ইউজিসির নীতিমালায়। এই নীতিমালায় ছাত্র সংগঠন করা যাবে না এমন কিছু বলা হয়নি এবং ২০১০ সালে ইউজিসির সেই নীতিমালায় পরিবর্তন আসে সেখানেও ছাত্র সংগঠন করা যাবে না এমন কিছু বলা নেই। ইউজিসির নীতিমালার ৬নং ধারার ১০ উপধারায় বলা হয়েছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব এবং জাতীয় স্বার্থে ও শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে কিছু করতে পারবে না এবং ৯ ধারার ৫ উপধারায় বলা হয়েছে শিক্ষার্থীদের শিক্ষার্জন, চলা-ফেরা ও নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে।

আবু হুরায়রা বলেন ৫২-এর ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ‘৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং ‘৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন পর্যন্ত ছাত্ররাজনীতির এরকম গৌরবজ্জল ইতিহাস থাকলেও, ক্রিয়াশীল ছাত্ররাজনীতি ধ্বংসের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে এক শ্রেণির নতজানু, প্রভুভক্ত, আত্মকেন্দ্রীক গোষ্ঠী।
বর্তমান প্রজন্ম রাজনৈতিক ভাবে অসচেতন হলে দেশে দূর্নীতি, লুটপাট, ভয়ের সংস্কৃতি, বিচারহীনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টির অভাবে দেশ একসময় বিদেশি প্রভু নির্ভর অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিনত হবে । এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসগুলোতে প্রগতিশীল রাজনৈতিক দর্শনের চর্চা না হলে, এক ধরনের মৌলবাদী সন্ত্রাসী সংগঠনের উত্থান হওয়ারও ঝুকি রয়ে যায়।

তাই, বৈশ্বিক রাজনীতিতে টিকে থেকে দেশকে এগিয়ে নিতে হলে মেধাভিত্তিক ছাত্ররাজনীতি চর্চার বিকল্প নেই। আর মেধাবী নেতৃত্ব বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই উঠে আসতে হবে।
তাই দেশের এই বৃহৎ শিক্ষার্থীদের মৌলিক মানবাধিকার সংরক্ষণ এবং তাদেরকে মূল ধারার নেতৃত্বে যুক্ত করার লক্ষ্যে ২০১১ সালে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের আওতায় “বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল ” প্রতিষ্ঠিত হয়। ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের তৎকালীন সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক ৪৯ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল ।
উক্ত আহবায়ক কমিটির হাত ধরে ২০১৩ সালে ০৯ টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের কমিটি অনুমোদিত হয়।

এরপরে ২০১৬ সালের ৬ই ফেব্রুয়ারি ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের তৎকালীন সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদক – ‘ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের ১০ সদস্যের কমিটি অনুমোদন করেন, যেটি পরবর্তীতে ২০১৬ সালের ২৫ অক্টোবর ৬৪৮ সদস্যের পূর্নাঙ্গ কমিটির অনুমোদন করেন।
পরবর্তীতে গত ৩০জুন ২০২২ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাংগঠনিক অভিভাবক, আগামীর রাষ্ট্রনায়ক দেশনায়ক জনাব তারেক রহমানের নির্দেশে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের বর্তমান সভাপতি জনাব কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবন এবং সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের ৫ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটি অনুমোদন করেন। এর-পরপরই সংগঠনের নবগঠিত কমিটির সভাপতি মোঃ আবু হোরায়রা এবং সাধারণ সম্পাদক এম. রাজীবুল ইসলাম তালুকদার বিন্দু পর্যায়ক্রমে ১০৮ টি বিবিশ্ববিদ্যালয়ের কমিটি গঠনের লক্ষ্যে গত ০৪-০৭-২০২২ ইং তারিখে ২০১৩ সালে গঠিত বিশ্ববিদ্যালয় কমিটি গুলো বিলুপ্ত করেন৷ এবং ইতিমধ্যে বেশ কয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মী সম্মেলন সফল ভাবে সম্পন্ন করা হয়। খুব দ্রুত সময়ে উক্ত ইউনিভার্সিটির কমিটি গুলো ঘোষণা করা হবে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল সভাপতি বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল সম্পূর্ণ গগনতান্ত্রিক, অসাম্প্রদায়িক ও শিক্ষার্থী বান্ধব চেতনা নিয়ে রাজনৈতিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। একটি ক্রিয়াশীল ছাত্রসংগঠন হিসেবে সবসময় শিক্ষার্থী বান্ধব কর্মসূচী নিয়েই কাজ করে আসছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল। যেমন শিক্ষার ওপর আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবীতে ২০১১ সালে এবং ২০১৫ সালে রাজপথে সরব অবস্থানে ছিল বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল । এছাড়াও নিরাপদ সড়ক আন্দোলন , কোটা সংস্কার আন্দোলন গুলোতেও শিক্ষার্থীদের দাবী আদায়ে মাঠে ছিল সংগঠনটি।

তিনি আরো বলেন, রাজনীতি করা ব্যক্তির সাংবিধানিক অধিকার। কোন প্রতিষ্ঠান সেটি নিষিদ্ধ করতে পারেনা। আমাদের জাতি হিসেবে যত অর্জন তার প্রতিটিতে ছাত্র রাজনীতি বিশেষ অবদান রেখেছে সব সময়৷ রাজনীতি সচেতন হওয়া প্রত্যেকটি মানুষের জন্য জরুরী৷ বিশেষ করে শিক্ষার্থীরা আমাদের দেশের জন্য ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব হিসেবে গড়ে উঠবে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল সভাপতি মোঃ আবু হোরায়রা বিশ্ববিদ্যালয় মালিক/কর্তৃপক্ষকে সাথে ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সহিত আলোচনার বসার আহবান জানিয়ে বলেন, অন‍্যথায় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আন্দোলনসহ আইনি নোটিশ পাঠানো ও রিট করার চিন্তাভাবনা আছে।

এসময় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের অন‍্যান‍্য নেতৃবৃন্দ্র উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful