রাজধানীতে যৌন উত্তেজক ভেজাল ওষুধ ও প্রসাধনীর ছড়াছড়ি ; আটক ১৫ জন!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজধানীর উত্তরায় নকল ওষুধ তৈরির কারখানায় অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়েছে কারখানার মালিকসহ ১৫ জনকে। পুলিশ বলছে, নকল এসব পণ্য সরবরাহ করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।
নিজস্ব কারখানায় তৈরি এসব যৌন উত্তেজকসহ বিভিন্ন ওষুধের মোড়ক পরিবর্তন করে হয়ে যায় আমেরিকার বিখ্যাত ব্র্যান্ড। এরপর তা পৌঁছে দেয়া হয় নামি-দামি বিভিন্ন ফার্মেসিতে।
আবদুস সালাম মল্লিকের নকল কারখানায় তৈরি নিম্নমানের কাঁচামাল, শিবলী নোমানীর হাতে এসে হয়ে যায় পশ্চিমা দেশগুলোর নামিদামি প্রতিষ্ঠানের ওষুধ সামগ্রী। নিজেরাই তৈরি করেন নকল মোড়ক। এভাবেই সবার অজান্তে শরীরের জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন প্রসাধনী পৌঁছে যায় সাধারণ ক্রেতার হাতে।
সর্বনিম্ন ৬০০ থেকে ১৩০০ টাকার এসব ওষুধ নিজেদের বিক্রয় কর্মী দিয়ে পৌঁছে দেয়া হয় নামি-দামি ফার্মেসিতে।
উত্তরায় নিজস্ব কারখানায় তৈরি হওয়া বিপুল পরিমাণ নকল ওষুধ এবং ভুয়া মোড়ক সহ বিভিন্ন ফার্মাসিতে অভিযান চালিয়ে এসব নকল ওষুধ জব্দ করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী।
ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর বলছে, এসব নিম্নমানের পণ্য শরীরের ভয়ংকর ক্ষতির কারণ হতে পারে। অন্য দিকে পুলিশ বলছে, আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে।
ডিবির (ঢাকা উত্তর) উপ-কমিশনার মশিউর রহমান বলেন, প্যাকেট, বোতল কিংবা ওষুধের কোনো অংশই বিদেশ থেকে আনা হয় না।
পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে রাজধানীর বিভিন্ন ফার্মাসিতে নকল ওষুধ সরবরাহ করে আসছিল প্রতিষ্ঠানটি।