মাদকের কাছে আমি কোন আপােষ করবােনা-সরকার মােহাম্মদ কায়সার

শামীম আহাম্মেদ : ভােলায় গত এক বছরে (জুন ২০১৯-জুলাই ২০২০) ৯২৯টি মাদকের মামলা হয়েছে। আসামী গ্রেফতার হয়েছে ১,২১৬ জন এবং ১৯২ জন মাদকসেবনকারীকে আত্মসমর্পন করিয়ে ৬৭ জনকে নিরাময় কেন্দ্রে পাঠানাে হয়েছে। ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে ১৪,২৮৭ এবং গাজা উদ্ধার হয়েছে প্রায় ৫০ কেজি। এছাড়াও স্পিরিট, দেশী মদ, বিয়ার, ফেনসিডিলসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্যও উদ্ধার করা হয়েছে।

মােহাম্মদ আবদুল মতিনের সঞ্চালনায় অস্ট্রেলিয়া টাইমস্-২৪ এর একটি লাইভ অনুষ্ঠানে ভােলার পুলিশ সুপার সরকার
মােহাম্মদ কায়সার এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, মাদকের কাছে আমি কোন আপােষ করবােনা। অনুষ্ঠানে
অতিথি হিসেবে আরাে উপস্থিত ছিলেন, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মােঃ আনােয়ার হােসেন বিপিএম (বার),
পিপিএম (বার) এবং বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামিলীগের সদস্য রেবেকা সুলতানা।
মাদকের সাথে অপরাধ এবং অপরাধীদের একটি ঘনিষ্ঠ যােগসূত্র রয়েছে। মাদক ক্রয়ের জন্য মাদকাসক্তরা যে কোন ধরনের ঘৃণিত কাজের সাথে জড়িয়ে পড়ে। ক্ষুদ্র অপরাধ থেকে
শুরু করে সব ধরনে ক্রাইম পর্যন্ত করে ফেলে মাদকসেবীরা। এছাড়া আরও কিছু মারাত্মক অপরাধ আছে যেগুলাে সরাসরি মাদকের সাথে সংশ্লিষ্ট। একটি সুন্দর ফুল বাগানকে বিনষ্ট করার জন্য যেমনি একটি হুতােম পেঁচাই যথেষ্ট। তেমনি তরুণ সমাজকে বিনষ্ট করার জন্য মাদকই যথেষ্ট। মাদক একটি সামাজিক ব্যাধি । বর্তমানে মাদকাসক্তি আমাদের সমাজে এক সর্বনাশা ব্যাধিরূপে বিস্তার
লাভ করছে। আজকাল তরুণ প্রজন্মের কাছে অতি সহজেই মাদকদ্রব্য পৌঁছে গেছে, আসুন আমরা ‘মাদককে না বলি, মাদক মুক্ত দেশ গড়ি’।

এসময় মাননীয় ভোলা জেলা পুলিশ সুপার মহোদয় সাংবাদিকদের প্রশংসা করে বলেন পুলিশ যেই উদ্দেশ্যে কাজ করেন ও আমাদের সংবাদকর্মীরা যে উদ্দেশ্যে কাজ করেন এ দুই পক্ষের উদ্দেশ্য একই । আমরা সবাই রাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে কাজ করি পুলিশ সাংবাদিক একই সূত্রে গাঁথা। সাংবাদিক হচ্ছে রাষ্ট্রের ফুটপিলার তাই সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম। এসময় ভোলার ঐতিহ্যকে সাবলীল ভাষায় তুলে ধরেন পুলিশ সুপার মহোদয় ।