বরিশালে সুগন্ধা নদী থেকে চলচ্চিত্রের প্রোডাকশন সহকারীর লাশ উদ্ধার

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ ভুতেরদিয়া সংলগ্ন সুগন্ধা নদী থেকে সাদ্দাম হোসেন (২২) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার বিকেল ৩ টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরিশাল মর্গে প্রেরণ করে পুলিশ। সাদ্দাম উজিরপুর উপজেলার ওটরা গ্রামের মো. শাহজাহান বেপারীর ছেলে। সাদ্দাম বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন সংস্থার (বিএফডিসি) প্রোডাকশন সহকারী হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

নিহতের ভগ্নিপতি মাইনুল হোসেন জানান, ঈদের  ছুটিতে গত ৩১ মে ঢাকা-ভান্ডারিয়া রুটে চলাচলকারী এমভি ফারহান-১০ লঞ্চযোগে ঢাকা থেকে বাড়ির উদ্দেশে বের হয় সাদ্দাম। আসার পথে লঞ্চের ভিতরে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে সে। এ সময় অজ্ঞান পার্টির সদস্যদের সাথে হাতাহাতি হয় সাদ্দামের। এক পর্যায়ে লঞ্চ স্টাফরাও সাদ্দামের উপর হামলা চালায়। হামলার ঘটনা শুক্রবার গভীর রাতে মোবাইল ফোনে তাকে জানায় সাদ্দাম।

পরদিন শনিবার ভোরে বানাড়ীপাড়ার মীরেরহাট লঞ্চঘাটে লোকজন নিয়ে সাদ্দামের খোঁজ নেন তিনি। কিন্তু লঞ্চ ঘাটে পৌঁছলেও সাদ্দামের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় ওই দিন উজিরপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করার জন্য গেলে থানা পুলিশ অভিযোগটি আমলে নেয়নি। তার ধারণা সাদ্দামকে লঞ্চ থেকে ফেলে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের করবেন বলেও জানান মাইনুল।

বাবুগঞ্জ থানার ওসি দিবাকর চন্দ্র দাস জানান, লাশটি ভাসতে দেখে এলাকাবাসী থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। খবর পেয়ে মাইনুল হোসেন নামের এক ব্যক্তি থানায় গিয়ে লাশ সনাক্ত করেন। পরে ময়না তদন্তের জন্য তার লাশ বরিশাল মর্গে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ দিলে মামলা দায়েরসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন ওসি।