পাইকগাছায় হাঁটার সাথী সংগঠনের সুদরবন ভ্রমণ

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ পাইকগাছার ঐতিহ্যবাহী স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক হাঁটার সাথী সংগঠনের সদস্যরা সুদরবন ভ্রমন করেছেন। করোনার কারণে দেশের বেশির ভাগ বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র ও বিনোদন পার্ক বন্ধ থাকায় সংগঠনের সদস্যরা পৃথিবীর সর্ববহৎ ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন ভ্রমনে যান।
তারা শুক্রবার সকাল ১০টায় জিরোপয়েন্ট থেকে মটর বাইক যোগে লাল-সবুজ বেশে কয়রার মহশ্বরীপুর পৌছান। পরে বানিয়াখালী ফরেস্ট ক্যাম্প খেয়াঘাট থেকে ট্রলার যোগে সুন্দরবন অভ্যন্তরে যায়। হড্ডা ফরেস্ট ষ্টেশনে বেশ কিছুটা সময় অবস্থান করে পরে আবার সুন্দরবন অভ্যন্তরে নদী-খাল হয়ে বানিয়াখালী চলে আসে। আসার সময় নদীর দু’ধারের অপরুপ প্রকৃতি ও সবুজ গাছ-পালা মুগ্ধ করে সবাইকে। বানিয়াখালীতে দুপুরের খাওয়া শেষে বিনোদনমূলক ও লাকি কুপন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের মাঝে পুরুষ্কার প্রদান করা হয়। সুন্দরবন ভ্রমনে সম্মানীত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কয়রা থানার ওসি ভারপ্রাপ্ত গৌতম মন্ডল ও বন কর্মকর্তা চঞ্চল রায়। অতিথি ছিলেন মেয়র পন্তী আলহাজ্ব ফাতেমা জাহাঙ্গীর, লাবণী সুলতানা ও সুমনা হক মুক্তা।
আরও উপস্থিত ছিলেন, হাঁটার সাথী সংগঠনের সভাপতি মোশারফ আলম খান বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন, সাংবাদিক আব্দুল আজিজ, এসএম আলাউদ্দিন সোহাগ, জিএম মিজানুর রহমান, ডিএসবি মোঃ সেলিম, সন্তোষ কুমার সরদার, অনিতা রাণী মন্ডল, কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন, অমিত সাহা, মত্যুজয় সরদার, সফিয়ার রহামান, ইবাদুল ইসলাম, বাসন্তি মন্ডল, সুদেব মন্ডল, রকি বিশ্বাস, অর্জুন, মঙ্গল, সাইফুল ইসলাম, কিংকর ও প্রদীপ।