পাইকগাছায় আন্তর্জাতিক শকুন দিবস পালিত

ইমদাদুল হকঃ পাইকগাছায় আন্তর্জাতিক শকুন সচেতনতা দিবস পালন করা হয়েছে।

শনিবার ৫ সেপ্টম্বর সকাল ১১ টায় পাইকগাছার নতুন বাজার সংগঠনের কার্যালয়ে শকুন সুরক্ষায় পরিবেশবাদী সংগঠন বনবিবি’র উদ্যোগে এক সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বনবিবি’র সভাপতি সাংবাদিক প্রকাশ ঘোষ বিধানের সভাপতিত্ব আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, কবি মাধুরী রাণী সাধু, নারায়ন চন্দ্র ঘোষ, গোবিন্দ লাল রায়, আশিস রায় চৌধুরী মিন্টু, রাজি সিদ্দিকী, জামাল হোসেন, অভিজিৎ রায় প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, শকুন আমাদের অতি পরিচিত পাখি। এক সময় বাংলাদেশের গ্রামগঞ্চ গরু, মহিষসহ গবাদি পশুর মৃতুদেহ যখানে ফেলা হতো সেখানে দলে দলে শকুন হাজির হতো। মৃতু প্রাণী বা পচাগলা ও বর্জ্য শকুনের খাবার। মৃতুদেহ পচে রোগ ছড়ানোর আগেই তা খেয়ে সাবাড় করে দিতো। তাই শকুন প্রকৃতির পরিছন্নতা কর্মি হিসাবে পরিচিত। কিন্ত এখন আর আগের মত শকুন দেখা যায় না। নির্মল পরিবেশ ও সুস্থ প্রকৃতির জন্য মহাবিপন্ন বাংলায় শকুন রক্ষা করা আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব। অনেক দেরিতে হলেও জানাগেছে, শকুন অশুভ কোন পাখি নয়, তারা মানুষের বন্ধু। শকুনের প্রজনন স্থল, বিশ্রাম, বাসা ও বিচরণ এলাকার বড় গাছ সংরক্ষণ করতে হবে। শকুন সংরক্ষণ গুরুত্ব সমাজের সর্বস্তরের মানুষের কাছে ছড়িয়ে দিতে সচেতনতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ ও উদ্বুদ্ধ করতে পারলে শকুন সুরক্ষা পদক্ষেপ সার্থক হবে। ভোলচার ডট ও আরজির মত প্রতি বছর সেপ্টম্বর মাসের প্রথম শনিবার পালিত হয় শকুন সচেতনতা দিবস। বিলুপ্ত প্রায় এ শকুনকে বাঁচাতে মানুষের মাঝে সচেতনতা বাড়ানোই শকুন সচেতনতা দিবসের উদ্দেশ্য।