পাইকগাছার সোলাদানায় পানীয় জলের পুকুর দখলের চেষ্টা : ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ

ইমদাদুল হকঃ পাইকগাছায় সোলাদানা ইউনিয়ন পরিষদে পানীয় জলের পুকুরটিতে ঘেরা-বেড়া দিয়ে দখলের চেষ্টা। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছেন কানুনগো।
 উপজেলার সোলাদানা ইউনিয়ন পরিষদে সোনাখালীর পানীয় জলের পুকুর শনিবার সকালে কতিপয় ব্যক্তি দখলের চেষ্টা করেন। বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকীকে জানালে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে কানুনগো মোজাম্মেল হোসেনকে ঘটনা স্থান পাঠান। কানুনগো দুপুরে সরেজমিনে যেয়ে উপস্থিত লোকজনদের কাজকর্ম বন্ধ করে দেন। পরবর্তী সিদ্ধান্ত না দেয়া পর্যন্ত কোন কাজ না করার নির্দেশ দেন। এ ব্যাপারে সোলাদানা ইউপি চেয়ারম্যান এস,এম, এনামুল হক বলেন, সোনাখালী, খাটুয়ামারী ও বেতবুনিয়া গ্রামের পানীয় জলের তীব্র সংকট থাকায় ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে পুকুর খনন করা হয়। মিষ্টি পানি ধরে রাখার ব্যবস্থা করায় পুকুর খননের পর থেকে এলাকাবাসী পানীয় জলের চাহিদা মিটিয়ে আসছে।
এদিকে কতিপয় ব্যক্তি হীন স্বার্থে পুকুর দখল করে পরিবেশ নষ্ট করার পায়তারা করছে। স্থানীয় অমীয় সরকার বলেন, পুকুরটি ইউনিয়ন পরিষদ দেখার কে? আমরা নিজেরা পুকুরটি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য চারিপাশে ঘেরাবেড়ার ব্যবস্থা করছি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী জানান, মৌখিকভাবে অভিযোগ পেয়ে কানুনগোকে পাঠিয়ে প্রাথমিকভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পরবর্তী প্রতিবেদন পাওয়ার পর কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।