নাটোরের চেয়ারম্যান-মেম্বার গম আত্মসাৎ মামলায় কারাগারে

নাটোর প্রতিনিধিঃ নাটোরের ছাতনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন ও মেম্বার শাহানাজ পারভীনকে  সরকারি গম আত্মসাৎ মামলায় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) দুপুরে নাটোর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট খুরশিদ আলমের আদালতে হাজির করা হলে তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া  হয়।

এর আগে বুধবার বিকেলে সদর উপজেলার ছাতনী ইউনিয়নের মাঝদীঘা পূর্বপাড়া গ্রামের কুরবান আলীর বাড়ি থেকে ১০০ বস্তা সরকারি গম জব্দ করা হয়।

নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, ছাতনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেনের নাতনী জামাই কোরবান আলীর বাড়িতে গোপনে খাল খনন প্রকল্পের সরকারি গম রাখা হয়। বিষয়টি জানাজানি হলে মাঝদীঘা পূর্বপাড়া গ্রামে ঐ বাড়িতে বুধবার (৫ আগস্ট) বিকেলে অভিযান চালায় পুলিশ।

অভিযানকালে একটি রুমে রাখা ১০০ বস্তা সরকারি গম পাওয়া যায়। এসময় কুরবান আলী ও তার পরিবারের সদস্যরা জানান গমগুলো চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন রেখে গেছেন।

পরে চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেনকে ডাকা হলে হলে তিনি গমগুলোর বিষয়ে সঠিক কোনো তথ্য দিতে পারেননি। পরে গমগুলো জব্দ করে থানা হেফাজতে নিয়ে আসা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে (৬ আগস্ট) দুর্নীতি দমন কমিশন, সমন্বিত কার্যালয় রাজশাহীর সহকারী পরিচালক নাজমুল হুসাইন বাদি হয়ে গম আত্মসাতের অভিযোগে চেয়ারম্যানসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন।

পরে চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন, মেম্বার শাহানাজ পারভীনকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।