তিতাসে আওয়ামীলীগ নেতাকে মারধরে ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রধান আসামী করে ২০ জনের নামে মামলা

তিতাস(কুমিল্লা)সংবাদদাতাঃ কুমিল্লার তিতাস উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক মো. জাকির হোসেন মুন্সিকে সামাজিক অনুষ্ঠান থেকে তুলে নিয়ে মারধরের ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রধান আসামী করে ২০ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ২০/৩০ অজ্ঞাত রেখে মামলা রম্নজু করেছে।

কুমিল্লার বিজ্ঞ সিনিঃ জুডিঃ ম্যাজিঃ ৩নং আমলী আদালতে ২৬/৮/২০২০ই তারিখে আওয়ামীলীগ নেতা জাকির হোসেন হাজির হয়ে লিখিত অভিযোগ দিলে বিজ্ঞ আদালত ওসি তিতাসকে নির্দেশ করেন মামলা রম্নজু করার জন্য। আদালতের নির্দেশ প্রাপ্ত হয়ে আজ শুক্রবার মামলাটি রম্নজু করেন তিতাস থানার ওসি। যার মামলা নং-১০ তাং ২৮/৮/২০২০ইং।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, বিগত ইউপি নির্বাচনে উপজেলার ৬নং ভিটিকান্দি ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল হোসেন মোলস্নার এর প্রতিদ্বন্ধি ছিল জাকির হোসেন মুন্সি। আসন্ন ইউপি নির্বাচনেও জাকির প্রার্খী হবেন বলে এলাকায় প্রচার প্রচারণা চালিয়ে আসছেন এতে চেয়ারম্যান আবু মোল্লা ক্ষিপ্ত হয়ে তাহার নির্দেশে ২নং আসামী চেয়ারম্যানের ছেলে জহিরের নেতৃত্বে ২১ আগষ্ট বিকালে উপজেলার তুলাকান্দি গ্রামের হানিফ সরকারের ছেলের সুন্নাতে খৎনা অনুষ্ঠান থেকে প্রাইভেটকার যোগে একই এলাকার নারায়নপুর যাওয়ার পথে গাড়ির গতিরোধ করে জোরপূর্বক জাকিরকে নামিয়ে গাড়ি ভাংচুর করে এবং নগদ টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে জাকিরকে সি এন জি চালিত অটোরিকশা যোগে উপজেলার মানিকান্দিস্থ চেয়ারম্যানের নিজ বাড়িতে নিয়ে মারধর করেছে বলে এজাহারে উল্লেখ করেন।

এবিষয়ে জানতে চেয়ারম্যান আবুল হোসেন মোলস্নার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারে ফোন করলে অন্য একজনে ফোন রিসিভ করে বলে চেয়ারম্যান সাহেব মিটিংয়ে আছে।