ঢাকা-১৮ আসনের আওয়ামীলীগ প্রার্থী হাবিব হাসানের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়

সালমা আক্তার, ঢাকা: গতকাল (২৯ অক্টোবর) সন্ধায় ঢাকা-১৮ আসনের আসন্ন উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব হাবিব হাসান উত্তরা মিডিয়া ক্লাব আয়োজিত উত্তরাস্থ সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

উত্তরা মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি দৈনিক মানবকন্ঠের প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক ৮৮ বছর বয়সী প্রবীন সাংবাদিক জাকারিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও উত্তরা মিডিয়া ক্লাবের সাধারন সম্পাদক শরীফুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় জনাব হাবিব হাসান সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

প্রশ্নোত্তর পর্বে দৈনিক সংবাদ দিগন্তের সম্পাদক এবিএম মনিরুজ্জামান বলেন, উত্তরার সেক্টরগুলোতে উন্নয়ন হলেও অনান্য নবগঠিত ওয়ার্ডগুলোর রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ ও চলাচলের অযোগ্য। অথচ বেশীরভাগ ভোটার ঐসব অঞ্চলে বসবাস করেন। আমি ৪৭ নং ওয়ার্ডের ভোটার ও বাসিন্দা। আমি দেখেছি রাস্তার কারনে মানুষের ভোগান্তি।

তিনি প্রশ্ন করেন, আপনি নির্বাচিত হলে ঐ অঞ্চলের রাস্তার উন্নয়নে আপনার পরিকল্লনা কি? উত্তরে জনাব হাবিব হাসান আশ্বস্ত করে বলেন, ইতিমধ্যেই নবগঠিত ওয়ার্ডগুলোর রাস্তা সংস্কারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে যা আগামী মার্চ মাসে কাজ শুরু হবে। নির্বাচিত হলে তিনি উক্ত ওয়ার্ডগুলোর রাস্তা উন্নয়নে আন্তরিক ভাবে দ্ধায়িত্ব পালনের অঙ্গীকার করেন। উত্তরার বাসিন্দা প্রয়াত গোলাম সরওয়ার, প্রয়াত শাহ আলমগীর, প্রবীন সাংবাদিক জাকারিয়া চৌধুরী ও প্রবীন সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম বেদুর নামে উত্তরার চারটি রাস্তার নামকরনের জন্য উত্তরা মিডিয়া ক্লাবের পক্ষ হতে প্রস্তাবনার প্রেক্ষিতে জনাব হাবিব হাসান বলেন, এটা সিটি কর্পোরেশনের এখতিয়ার। তবে এক প্রস্তাবের সাথে একমত প্রকাশ করে এ ব্যাপারে সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন।

গনমাধ্যমকর্মী নাফিস মাহবুবের উত্তরায় সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজি সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে প্রার্থী বলেন, আমি নির্বাচিত হলে উত্তরায় কোন সন্ত্রাসী বা চাঁদাবাজদের স্থান হবে না। সাংবাদিক নাদিরা ভুমিদস্যুদের রিরূদ্ধে কি ব্যবস্থা নিবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভূমিদস্যু যেই হোক আমি নির্বাচিত হলে তাদের আমার এলাকায় ঠাই হবে না। উত্তরায় সাংবাদিক নির্যাতন সংক্রান্ত উত্তরা সেন্ট্রাল প্রেস ক্লাবের সভাপতি জুয়েল আনান্দের প্রেশ্লের জবাবে তিঁনি বলেন, কোন সাংবাদিক যদি নিউজ করতে গিয়ে নির্যাতনের শিকার হন তাহলে আমার কাছে আসবেন, আমি অবশ্যই যথাযথ ব্যবস্থা নিব। উত্তরার সাংবাদিকদের স্থায়ী অফিসের জন্য জায়গা বরাদ্ধ করার জন্য উত্তরা প্রেস ক্লাবের সভাপতি সেলিম কবিরের প্রস্তাবনার প্রেক্ষিতে হাবিব হাসান উদ্যোগ গ্রহন করবেন বলে আশ্বস্থ করেন।

এছাড়াও বিভিন্ন গনমাধ্যমের সাংবাদিকগন বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। জনাব হাবিব হাসান ধৈর্য সহকারে সকলের প্রশ্ন শোনেন এবং আন্তরিকতার সহিত সকলের প্রশ্নের উত্তর দেন। তিনি সাংবাদিকদের সত্য প্রকাশের মাধ্যমে দেশ ও জাতির কল্যানে অংশ গ্রহনের আহবান জানান।

তিনি বলেন, আমিও যদি অন্যায় করি আপনারা অবশ্যই লিখবেন। তিনি সকলকে ভোটকেন্দ্র গিয়ে যার যার ভোট প্রদানের আহবান জানান। এ দিনে উত্তরা মিডিয়া ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ৭৮ বছর বয়সী প্রবীন সাংবাদিক ও লেখক আমিনুল ইসলাম বেদুর জন্মদিন থাকায় কেক কেটে শুভেচ্ছা জানানো হয়। জনাব হাবিব হাসান এসময় জনাব বেদুকে কেক খাইয়ে দেন ও শুভেচ্ছা জানান। আওয়ামী নেতা তোফাজ্জেল হোসেন, বৃহত্তর উত্তরার বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড কমিটির নেতৃবৃন্দ্রসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীগন এসময় উপস্থিত ছিলেন।