জাল দলিলের অভিযোগে সদস্য পদ হারালেন চেয়ারম্যান মজিদ

পাইকগাছা প্রতিনিধিঃ পাইকগাছার রাড়লী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ গোলদারকে রাড়লী ভুবন মোহিনী বালিকা বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য পদ থেকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে।

২৯ সেপ্টম্বর যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড এ অব্যাহতি দিয়েছে বলে যশোর শিক্ষা বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক ড. বিশ্বাস শাহিন আহম্মেদ স্বাক্ষরিত পত্রে জানা গেছে।

উপজেলার রাড়লী ইউনিয়নে বিজ্ঞানী আচার্য্য প্রফুল্ল চন্দ্র রায়ের মায়ের নামে রাড়লী ভুবন মোহনী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ গোলদার। বিগত ১৯৮৬ সালে শ্রীকন্ঠপুর মৌজায় সম্পত্তি ক্রয় করে স্কুলের নামে দান করে দাতা সদস্য হয়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হন। এদিকে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভুয়া জাল দলিলের অভিযোগ এনে বিদ্যালয়ের অভিভাবক ও এলাকাবাসী যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড এর চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন প্রেরনের নির্দেশনা দেন। সে অনুয়ায়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরেজমিনে তদন্ত করে ২সেপ্টেম্বর ০৫.৪৪. ৪৭৬৪. ০০০.৩৪. ০০৬. ২০১৯-৭৭৩(যুক্ত) নং স্মারকে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ১৯৮৬ সালে বিদ্যালয়ের নামে জমি রেজিষ্ট্রী করা সত্ত্বেও অদ্যাবধি বিদ্যালয় উক্ত জমিতে ভোগ দখলে যেতে পারে নাই। তাছাড়া উক্ত জমির বিষয়ে আদালতে মামলা বিচারাধীন রয়েছে। সে কারনে জমি দাতা হিসেবে আঃ মজিদ গোলদারের বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য হওয়ার কোন বৈধতা না থাকায় তাকে উক্ত পদ থেকে অব্যহতি প্রদান করেছে যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ বিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী জানিয়েছেন, বোর্ডের নির্দেশনা অনুয়ায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।