ওসি মাহফুজের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় বাংলাদেশ মিডিয়া ইনস্টিটিউট সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট-লালমনিরহাট এর পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা।

এস.আর শরিফুল ইসলাম রতনঃ ভালো কে ভালো বলা, মন্দ কে মন্দ বলা-একজন সুনাগরিকের দায়িত্ব। তাই বলে বিরোধীতার খাতিরে একজন ভালো লোককে মন্দ বলে প্রচার করা নিন্দনীয়। লালমনিরহাট সদর থানায় যে ধরনের চৌকস, দক্ষ একজন অফিসার দরকার,সাধারণ মানুষের সেই আকাঙ্খা শতভাগ পুরণ করেছেন বর্তমান সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহফুজ আলম। তিনি নম্র, ভদ্র এবং অত্যন্ত বিনয়ী একজন মানুষ হিসাবে সবার মাঝে সমাদৃত। বর্তমান সময়ে পুলিশকে নিয়ে বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা গঠেছে। তবে এই পুলিশ সদস্য করোনা কালে যে মানবিক দৃষ্টান্ত স্থাপন  করেছেন তা বিরল। মানবিক পুলিশের তালিকায় ওসি মাহফুজ আলম রয়েছেন প্রথম সারিতে। তার আমলে কখনও শুনিনি সাধারণ মানুষ থানায় যেতে বিবৃতবোধ করেছেন। অথচ, ইতিপূর্বে দেখা গেছে থানা পুলিশের নাম শুনলে মানুষ আতঙ্কিত হতো। মাহফুজ আলম এর অন্য একটি গুণও রয়েছে। কখনও কোন নির্দোষ মানুষকে ফাঁসাতে পুলিশকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করার চেষ্টা করলে তিনি সত্যের পক্ষে দৃঢ় অবস্থান গ্রহণ করেছেন। ইতিপূর্বে সারা বাংলাদেশের মধ্যে লালমনিরহাট জেলা পুলিশ সুপার হিসেবে দশবার পুরুস্কার প্রাপ্ত পুলিশ সুপার এস.এম রশিদুল হকের সময় থেকে বর্তমান পুলিশ সুপার জনাব আবিদা সুলতানা (বিপিএম-পিপিএম) মহোদয়ের সাথে মাহফুজ আলম সৎ ও নিষ্ঠার সহিত দায়িত্ব পালন করে আসছেন।  আজকে যখন দুই হাজার কোটি টাকার   দুর্নীতিগ্রস্ত্ত ওসি প্রদীপকে নিয়ে বির্তক চলছে ঠিক তখনি ওসি মাহফুজ আলমের মতো একজন দক্ষ ও সৎ পুলিশ অফিসারকে তাদের সাথে তুলনা করা অবিচার হবে। জানি না কারা কি উদ্দেশ্যে এসব অপ্রচার চালাচ্ছে। তবে অনুরোধ করব ভালোকে ভালো থাকতে দেওয়াটা সমাজের জন্য মঙ্গল। আমরা ভালোকে খারাপের সাথে যেন গুলিয়ে না ফেলি। জেলা শহরে পুলিশকে নানামুখী চাপ নিয়ে কাজ করতে হয়। একজন দক্ষ ও চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা ছাড়া এটি মানিয়ে নেওয়া সম্ভব না। মাহফুজ আলম সকল দিক ঠিক রেখে জেলা শহরে সামাজিক কর্মকান্ড, শিল্প-সাংস্কৃতি, খেলাধুলায় সহযোগিতা করে গেছে এবং মাদক মুক্ত লালমনিরহাট শহর গড়তে তার ভূমিকা ছিল অতুলনীয়। করোনা কালীন সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে কখনও কুন্ঠাবোধ করেননি তিনি। ওসি মাহফুজ আলম এর বিরুদ্ধে যারা এসব অপ্রচার করছেন “বাংলাদেশ মিডিয়া ইনস্টিটিউট সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট” এর পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।