আমন ধান চাষে মুখেহাসি ফোটানোর চেষ্টা কৃষকের

ফয়সাল আহমেদঃ  কুড়িগ্রামে ৫৬টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভায় দফায় দফায় তিনবার বন্যা হানা দেয়। বন্যার পানি নেমে যাওয়ার দীর্ঘ দিন পার হলেও জেলার নাগেশ্বরী উপজেলায় অনেক জমি চারা রোপনের উপযুক্ত হতে অনেক সময় লেগেছে। বর্তমানে ঐসব জমির মালিক ক্ষতি পোষাতে ঘুরে দাড়ানোর চেষ্টায় আমন চারা ক্রয় করে রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছে।

জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার রায়গঞ্জ, নুনখাওয়া, বল্লভেরখাস, কচাকাটা, বেরুবাড়ী সহ অনেক এলাকায় বন্যার পর সম্প্রতি চাষাবাদে উপযোগী জমিতে আমন চারা রোপন করছেন কৃষকরা।
কৃষক আজিজুল, মানিক, জামিল, জয়নাল জানান, বন্যার কারণে আমন চারা রোপনের সময় অনেকটা পার হয়ে গেছে। বিভিন্ন এলাকা থেকে আমন চারা সংগ্রহ করে অসময়ে চারা রোপন করছি জানিনা ফলন কেমন হবে। তবে এখনও প্রাকৃতিক দুর্যোগ পুরোপুরি কাটেনি। কয়েকদিন হতে বৃষ্টি হতেই আছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রাজেন্দ্রনাথ রায় জানান, চলতি মৌসুমে আমনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে ২৪ হাজার ৩৭৫ হেক্টর জমি। যার এখন পর্যন্ত ১৯ হাজার হেক্টর জমিতে চারা রোপন সম্পন্ন হয়েছে। বাকীগুলো চলমান রয়েছে। সরকারিভাবে কৃষকদের মাঝে চারা বিতরন করা হচ্ছে।