অপরাধ দমনে সক্রিয় ভূমিকা রাখছেন (এস আই) হারুন অর রশিদ

মোঃ মাহাবুব আলমঃ ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানায়   পুলিশ সাম্প্রতিক সময়ে অপরাধ দমনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে চলেছেন। তারি ধারাবাহিকতায় ঢাকা জেলা পুলিশের সাহসী পুলিশ অফিসাররা এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করে চলেছেন। তবে এসব সাহসী পুলিশ অফিসারের মধ্যে অল্প দিনে জনগনের মাঝে বেশ পরিচিতি পেয়েছেন  আশুলিয়া  থানার  উপ-পরিদর্শক (এস আই)  হারুন অর রশিদ  ।
তিনি আইনের সেবা করতে গিয়ে কখনোই অপরাধীদের সাথে আপোষ করেননি।সে  কারনে সাফল্যের পাল্লা দিন দিন ভারি হয়ে উঠছে। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি  বেশ কয়েকটি সাহসী অভিযান পরিচালনা করে অপরাধীদের কাছে আতংক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন বলে মনে করেন আশুলিয়া বাসি।
 ইতিপূর্বে তিনি  সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মাদক বিরোধী অভিযানে সাহসী ভুমিকা পালন করেছেন।
পুলিশের ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রাখতে ও জনগণের সেবা সঠিকভাবে পালন করার কারনেই তিনি অনেক সাফল্য লাভ করেছেন।
পুলিশ নিয়ে অনেকের বিরুপ ধারনা থাকলে ও ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক  এস আই হারুন সেই ধারণা বদলে দিয়েছেন। এস আই হারুন একজন ব্যতিক্রমী মিষ্টভাষি পুলিশ অফিসার। প্রতিনিয়ত তিনি সহকর্মী ও সাধারণ  জনগনের আদর্শগত ভিন্নতা মেনে নিয়ে পরস্পরের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন জনগন ও দেশের কল্যাণে। পুলিশ জনগণের বন্ধু  তিনি এই বাক্যটির উতকৃষ্ট নিদর্শন।বর্তমান সময় আশুলিয়া থানায় সর্বত্রই পুলিশের নাম শুনলেই সন্ত্রাসী মাদক ব্যাবসায়ী ধর্ষণকারী ও ভূমিদস্যুদের মনে আতংক বিরাজ করে।
এমনি একজন সাহসী পুলিশ অফিসার (এস আই) হারুন অর রশিদ,আশুলিয়া  থানায় যোগদানের পর থেকে ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করে চলেছেন। খুব কম সময়ে নিজের কর্ম দক্ষতার প্রমান দিয়ে সাহসী ভূমিকায় একের পর এক আসামী গ্রেফতার, মাদক উদ্ধার সহ নানা ভাবে সফলতা লাভ করে চলেছেন। আশুলিয়ার বিভিন্ন এলাকার সন্ত্রাসীদের কাছে তিনি একজন আতংক পুলিশ অফিসার  হিসাবে নিজেকে জানান দিতে সক্ষম হয়েছেন এই উপ-পরিদর্শ।  শুধু তাই নয় নিজের কর্মগুনে প্রশাসনের উর্দ্ধতনমহলেও প্রশংসা শোনাযায় এই পুলিশ অফিসারের । শুধুমাত্র চোর, ডাকাত, মাদক ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন মামলায় অভিযুক্ত এবং শীর্ষ সন্ত্রাসী ছাড়াও হত্যা, খুন, গুম, ভূমিদস্যু, ধর্ষন, অপহরন, চাঁদাবাজসহ অন্যান্য মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত আসামীদেরকেও তিনি গ্রেফতার করে আদালতের কাঠগড়ায় দাড় করাতে সক্ষম হয়েছেন। অল্প সময়েই তিনি বেশ সৎ ও সাহসীকতার পরিচয় দিয়ে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছেন আশুলিয়ার সর্বস্তরের সাধারণ জনগণের  কাছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায় বেশ কয়েকটি অভিযানে মাদক ব্যবসায়ী সহ সেবনকারীদের গ্রেফতার করেছেন। এতে করে মাদক ব্যবসায়ীদের আতংকের নাম (এস আই) হারুন অর রশিদ,  এলাকার কোথাও মাদক বিক্রি হচ্ছে বা কেউ সেবন করছে, এমন তথ্য পাওয়া মাত্র আশুলিয়া  থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জনাব মোঃ কামরুজ্জামানের অনুমতি নিয়ে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেন। যে কারনে সাহসী পুলিশ অফিসারের মধ্যে অন্যতম হারুন অর রশিদ  । তবে সৎ নিষ্ঠাবান অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জনাব মোঃ কামরুজ্জামান এর নেতৃত্বে একদল সাহসী পুলিশ অফিসার রয়েছে যারা প্রতিনিয়ত মাদক সহ সকল অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে রয়েছেন।  উপ-পরিদর্শক ( এস আই) হারুন সাফল্যের নেপথ্যে কি তা জানার জন্য তাকে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, পুলিশ জনগণের বন্ধু। আর অপরাধীরা জনগণের ও রাষ্ট্রের শত্রু,  আগামী ১৬ই ডিসেম্বরের মধ্যে আশুলিয়া থানাকে মাদক  নির্মুল করেই ছাড়বো   । রাষ্ট্র ও জনগণের এসব শত্রুদের থেকে রক্ষা করতেই পুলিশে চাকরি নিয়েছি।
তিনি আরো বলেন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জনাব কামরুজ্জামান এর নেতৃত্বে কঠোর নির্দেশ পালন করার জন্য সবসময় প্রস্তুত রয়েছি।যে কারনে অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান সহ ঢাকা  জেলা পুলিশ